life styleUncategorized

জেনে নিন স্মার্টওয়াচ ব্যবহারের ৬ টি সুবিধা

 

জেনে নিন স্মার্টওয়াচ ব্যবহারের ৬ টি সুবিধা

জেনে নিন স্মার্টওয়াচ ব্যবহারের ৬ টি সুবিধা

সাম্প্রতিককালের বিজ্ঞানের দারুন একটা আবিষ্কার হল স্মার্ট ওয়াচ।হাতে ঘড়ি পড়ার অভ্যাস আমাদের কমবেশি সবারই আছে। এটি যেন নিজের ব্যক্তিত্বকে আরো আভিজাত্য এনে দেয়, এবং যে এই ঘড়িটি পড়ে থাকে তার সময় জ্ঞান বিবেচনা অনেকটা  প্রখর হয়ে যায়।  স্মার্টওয়াচ এখন সাধারণত অনেকেরই নৃত্য ব্যবহারযোগ্য প্রযুক্তিপণ্য এবং এটি অনেকের কাছে জনপ্রিয় বটে। কিন্তু আমরা সাধারণত যারা স্মার্টওয়াচ ব্যবহার করি না তারা সাধারনত এর সুবিধাগুলো সম্পর্কে তেমন জানি না। আজকে আমি আপনাদেরকে বলবো যে ৮ টি কারণে আপনাদের অবশ্যই স্মার্টওয়াচ ব্যবহার করা উচিতঃ

 

 

(১) ফিটনেস ট্রাকিং

 

 

স্মার্টওয়াচের সবচেয়ে বড় সুবিধা  সেটি হল ফিটনেস ট্রাকিং। আর সাধারনত স্মার্টওয়াচের এই সুবিধাটি আমার কাছে অনেক চমকপ্রদ লাগে। অনেকটা এরকম যেন হাতে বাঁধা মিনি ডায়াগনস্টিক সেন্টার। সাধারণত আপনার এই মুহূর্তে ব্লাড প্রেসার কত বা আপনার হার্ট রেট কত আপনার এর জন্য ডাক্তার বাড়ি যাওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই আপনি যখন একটি স্মার্টওয়াচ হাতে পড়ে থাকবেন তখন সেটাই আপনাকে নিখুঁতভাবে পরিমাপ করে দেবে আপনার শারীরিক অবস্থা। আর এর ফলে আপনি আরো অনেকটা স্বাস্থ্য সচেতন হতে পারবেন।

জেনে নিন স্মার্টওয়াচ ব্যবহারের ৬ টি সুবিধা

 

(২) হাতঘড়িতে রয়েছে প্রয়োজনীয় নোটিফিকেশন

 

আপনি কি কখনো খেয়াল করে দেখেছেন যে আপনি সবচেয়ে কোন কারণে আপনার স্মার্টফোনটি সবচেয়ে বেশিবার আনলক করেন। হ্যাঁ সেটি হচ্ছে নোটিফিকেশন চেক করার জন্য। কিন্তু সব সময় বা সব ক্ষেত্রে মোবাইল বের করে এসব নোটিফিকেশন দেখে জবাব দেয়া কিন্তু অনেকটা ঝামেলার হয়ে যায়। আর এক্ষেত্রে স্মার্টওয়াচ হতে পারে আপনার চমৎকার সমাধান।আপনি স্মার্টফোনটির বের না করেই আপনার হাতে থাকা স্মার্টওয়াচটি স্পর্শ করে আপনি আপনার নোটিফিকেশনগুলো জবাব দিতে পারবেন দ্রুত।

 

 

(৩) দ্রুত কল রিসিভ এবং মেসেজ রিপ্লাই দেয়া যায়

 

জরুরি কল রিসিভ ইউর মেসেজ রিপ্লাই দেয়ার জন্য শুধু সেই স্মার্ট ফোন ব্যবহার করতে হবে তা কিন্তু নয় আপনি চাইলেই স্মার্টওয়াচ ব্যবহার করতে পারেন এক্ষেত্রে আপনি অনেক সহজ ভাবে এটি ব্যবহার করতে পারবেন। তাছাড়া অনেক সময়ই স্মার্টফোন সাইলেন্ট হয়ে যাওয়ার সময় যে  কল গুলো সাধারনত আমাদের মিস হয় যায় স্মার্টওয়াচের সাধারণত সেই ভয়টা থাকেনা। সাধারণত আপনি এর মাধ্যমে কথা বলার পাশাপাশি ভয়েজ কিবোর্ড ব্যবহার করে মেসেজের রিপ্লাই দিতে পারবেন খুবই দ্রুত।

 

 

(৪)স্মার্টফোন খুঁজে দিয়ে থাকে স্মার্ট ওয়াচ

 

 

সাধারণত হঠাৎ করেই স্মার্ট ফোন হারিয়ে গেছে এই সমস্যাটা কমবেশি সবার হয়ে থাকে। আর সাধারনত বিপদ তখন আরও বেড়ে যায় যখন ফোনটি সাইলেন্ট অবস্থায় থাকে। সেক্ষেত্রে আপনার হাতে থাকা স্মার্টওয়াচটি আপনার ফোনটি খুঁজে দিতে পারে এক মিনিটেই। সাধারণত আপনি আপনার স্মর্টওয়াচ সে কয়েকবার স্পর্শ করেই জিপিএস ব্যবহার করে আপনার ফোনটি খুঁজে পাবেন খুবই দ্রুত। সাধারণত এটি একটি স্মার্ট ওয়াচ ব্যবহারের অসাধারণ সুবিধা।

 

 

 

(৫) ভ্রমণসংগী স্মার্ট ওয়াচ

 

 

সাধারণত আমরা যখন অচেনা জায়গায় ঘুরতে যাই অনেকেরই হারিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তবে আপনার হাতে যদি থাকে একটি স্মার্টওয়াচ তাহলে আপনাকে এ সমস্যা থেকে মুক্তি দেয়। আর সাধারনত আপনার হাতে থাকা জিপিএস আপনাকে প্রতি মুহূর্তে আপনার অবস্থান জানিয়ে দেবে এবং আপনি কোন স্থানে যেতে সেটাও বলে দেবে। সাধারণত এটিও স্মার্ট ওয়াচ  ব্যবহারের একটি অসাধারণ সুবিধা।

 

 

(৬)নিরাপত্তার জন্য স্মার্ট ওয়াচ

 

হয়তো আপনি কোন মেলায় ঘুরতে গেলেন সাথে ছিল আপনার ছোট ভাই সে হয়তো হারিয়ে গেল এবার আপনার মনে হতে পারে যে ভাইদের হাতে যদি স্মার্টওয়াচ থাকত তাহলে সে কোন ভাবে হারিয়ে যেত না। স্মার্টওয়াচের জিপিএস ব্যবহার করে স্মার্টফোনের তাৎক্ষণিক অবস্থা বলে দিতে পারে স্মার্ট ওয়াচ। তাই ছোট ছেলে মেয়ে বাজে কারো হাতে যদি স্মার্টওয়াচ থেকে থাকে তাহলে আপনি ফোনের মাধ্যমে তার অবস্থান বের করতে পারবেন সে হারিয়ে গেলেও।

 

 

পরিশেষে,সাধারণত এই হল স্মার্টফোন ব্যবহারের কয়েকটি সুবিধা তবে আরো অনেক সুবিধা রয়েছে স্মার্টওয়াচ ব্যবহারের।স্মার্টওয়াচ সাধারণত আমাদের তথ্য আদান-প্রদান প্রক্রিয়াকে আরো অনেক সহজতর করে তুলেছে।তাই আপনাদের একবার হলেও স্মার্টওয়াচ ব্যবহার করা উচিত।

facebook contact me

thank you

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button